দিপ্র ও ইকরা

মেয়েটিকে অনেক আগে থেকেই চিনি… একসাথে ডিবেট করতাম। পরিচয়ও হয় একটি ডিবেট কম্পিটিশনে। প্রথম দিকে কথাবার্তা তেমন হত না, শুধুই চোখাচোখি… প্রথম যখন পরিচয় হয় তখন ডিবেটে আমাদের অবস্থান ছিল্ দুই বিপরীত দলে। আমি তার দলের কাছে হেরে যাই… হেরে গিয়ে কান্না কাটি শুরু করি। ও আমাকে কাঁদতে দেখে আমার কাছে এসে বলে, “এই পিচ্চি কাঁদো কেন?“ আমি মাথা তুলে ওর দিকে তাকিয়ে কোন কথা বলিনা… ও বলে, “চুপ কেন?” আমি বলি, “এমনি”। কিছুক্ষণের নীরবতা… হঠাত নীরবতা ভাঙে। ও বলে, “আচ্ছা পিচ্চি , বাদ দাও…… তোমার নাম দিপ্র না ??“

মেজাজটা অনেক খারাপ হয়… এমনিতেই ডিবেটে হেরে গেছি তার উপর “পিচ্চি পিচ্চি” করছে :@……তবুও আমি হ্যাঁ সূচক মাথা নাড়ি… কিন্তু আমি ওর নাম জানতাম না। আমি ওকে ওর নাম জিজ্ঞেস করতেই সে বলে দেয় তার নাম ইকরা। এভাবেই আমদের মাঝে ফ্রেন্ডশিপ হয়… এরপর ওইদিন যাওয়ার সময় ও আমাকে ওর ফোন নাম্বার দিয়ে যায়…

এর ঠিক ৬ দিন পর আমি ওকে ফোন করি। কেও একজন ফোন রিসিভ করে। মেয়ে কণ্ঠ শুনেই আন্দাজ করি এটাই সেই চঞ্চল মেয়ে। আমি বলি, “ইকরা আছে?“ ওপাশ থেকে বলে, “হ্যাঁ, কে আপনি ??” আমি বলি , “আমি দিপ্র”… এটা শুনেই ও বলে ওঠে, “ওমা তুমি!!! তোমার কথাই চিন্তা করছিলাম…!” ঐদিন অনেকখন কথা হয়… এরপর থেকে নিয়মিত কথা হয়…ভাল মন্দ একে অপরের সাথে শেয়ার করতে থাকি… এত চঞ্চল মেয়ে! আমাকে পিচ্চি বলেই ডাকে… এখন আর মন্দ লাগেনা… ওর সাথে কিছুদিনের মাঝেই সম্পর্ক “তুই” হয়ে যায়। আমি আমার বন্ধুদের সাথে ওর পরিচয় করিয়ে দেই। ও ওর বান্ধবীদের সাথেও আমার পরিচয় করায়ে দেয়। এভাবে আমাদের ফ্রেন্ড সার্কেল বড় হয়…

এদিকে আমরা আমাদের ডিবেট চালিয়ে যেতে থাকি… আমি ঠিক করি এরপরের যেকোনো ডিবেট কম্পিটিশন পেলেই ওকে প্রপস করে দিব। তাই অপেক্ষায় থাকি… শেষ পর্যন্ত সেই দিন আসে। ডিবেট এর দিন আমি ওকে বলে ফেলি I lv u…… বলার সাথে সাথে মারল এক চড়। আমি পুরা হা! লজ্জায় মাথা নিচু করে, আসে পাশে তাকায়ে আস্তে করে চলে আসলাম। মাথায় কিছু কাজ করল না। আমার ফ্রেন্ড রাও দেখল… কি করব কিছুই বুঝলাম না। রাতের বেলা একটি অপরিচিত নাম্বার থেকে মেসেজ এবং ফোন এসে ভরে যায়। সব মেসেজ এই লেখা “I lv u’ এবং নিচে লেখা ইকরা। আমার প্রথমেই ফ্রেন্ডদের কথা মনে হল। নাম্বার টা অপরিচিত। তার মানে এইটা ফ্রেন্ডদের কাজ। পরদিনই আমি ইকরা কে সরি বলার জন্য ফোন করি। ফোন করেই সরি বলে রেখে দেই। সাথে সাথেই কল ব্যাক আসে। আমি ফোন ধরলেই ও বলে “আমার মেসেজ এর Answer কই?? “ আমি অবাক হই… বলি কোন মেসেজ? ও বলে, “কাল রাতে কতগুলা মেসেজ দিলাম তোকে??” আমি পুরা অবাক আসলেই ওইটা ইকরা ছিল!!! আমি তখন ওকে বললাম, “তাহলে তুই থাপ্পর দিলি কেন সেইদিন ??” ও বলল, “আমি চাইসিলাম আমি তোকে I lv u বলব কিন্তু তুই সেই সুযোগ দিলিনা পিচ্চি…………………….”
তখন থেকেই আমাদের রিলেশন শুরু…

এরপর থেকে কথা বলা আরও বেড়ে… দিনের চেয়ে রাতে আরও বেশি কথা হয়… সবকিছু ভালই চলছিল কিন্তু হঠাত করেই ওর বাসায় সব জেনে যায়। আনটি আমাকে অনেক ভাল জানত। কিন্তু যতই ভাল জানুক… এই ব্যাপারে খুব কম মা ই তার মেয়ে কে সাপোর্ট দেয়… শেষ পর্যন্ত ইকরার মা কেও ইকরা অনেক কষ্ট করে শান্ত রাখে… এক সময় ইকরার বাবাও জেনে যায়… এসব নিয়ে অনেক ঝামেলা হয় কিন্তু সব কিছুই এক সময় মোটামোটি ঠিক হয়ে যায়… এই ইকরা শত কষ্ট করে হলেও তার পিচ্চির সাথে সম্পর্ক রেখেছে। কিন্তু সবকিছু ঠিক হয়েও কেন জানি ঠিক হতে চায় না। আমদের পিছু লাগে ইকরার ই এক বান্ধবী। সে আমাকে হয়ত পছন্দ করত। কিন্তু এখন আমাকে আর ইকরা কে সুখী দেখে তার আর সহ্য হল না। আমার নামে হাজারও কথা বানিয়ে ইকরার কাছে ছড়াতে লাগল। যেই ইকরা তার ফ্যামিলি কে পাশ কাটিয়ে আমার সাথে সম্পর্ক রেখেছিল সে ই একদিন ফোন করে আমাকে বলে দিল সে আর আমার সাথে সম্পর্ক রাখতে পারবেনা… আমি বললাম আমার ভুল কোথায়… কিন্তু ও আমার কথার উত্তর না দিয়েই বলে তোর কোন ভুল নাই….তবুও আমি পারবনা… আমি পুরা নিঃস্ব হয়ে পরি…
যেই ইকরা আমাকে বলেছিল “I want u for 2 times…now & forever…” আর সেই ইকরার forever হল মাত্র ৩ মাস! হায় ভালবাসা!!! যেই আমি পরীক্ষায় ফেল করতাম… সে শুধু ইকরার নির্দেশে পর পর দুই বার এত ভাল Result করলাম … কিন্তু সেই ইকরাই আজ কি করল !

আমার দোষ কোথায়? আমি কি করবো?